ইংল্যান্ড জার্মানি মহারণ আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৬৩
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৯ জুন, ২০২১, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন

ইউরোর ফাইনালের দিন এখনো দূরে। তার আগেই অলিখিত ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে জার্মানি এবং ইংল্যান্ড। এই দুই দেশের ফুটবল লড়াই মহারণে পরিণত হতে যাচ্ছে লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম। রাত ১০টায় খেলা।

এই দুই দল মাঠে নামার আগেই তির ছোড়া শুরু হয়ে গেছে। এ যেন মাঠে নামার আগেই স্টেডিয়ামের বাইরে মারামারি। লন্ডনের ওয়েম্বলিতে জার্মানিকে অনুশীলন করতে দেওয়া হবে না। আন্তর্জাতিক ফুটবলে নিয়ম হচ্ছে ম্যাচের আগের দিন দুই দলই অনুশীলন করার সুযোগ পাবে। কিন্তু উয়েফা জানিয়ে দিয়েছে জার্মানি ওয়েম্বলিতে অনুশীলন করতে পারবে না। কারণ বৃষ্টি। বৃষ্টি মাঠে অনুশীলন করতে না দেওয়া যায় না। এই কথা বলে জার্মানিকে ঠেকিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর এমন খবরে মহা খ্যাপা খ্যাপেছেন জার্মান কোচ জোয়াকিম লো। এটা কী ধরনের আচরণ। উয়েফার এমন আচরণে জার্মানিরাও ক্ষুব্ধ। সেখানকার সংবাদপত্রগুলোতে ফলাও করে প্রচার হয়েছে। আর এসব নিয়ে ম্যাচের চেয়ে ম্যাচের বাইরের আলোচনা বেশিই হচ্ছে ইউরোতে।

উয়েফা বলছে বৃষ্টির কারণে মাচের ২৪ ঘণ্টা আগে অনুশীলন করতে দেওয়া হচ্ছে না। উয়েফা খবর নিয়েছে ম্যাচের ২৪ ঘণ্টা আগে ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। যদি বৃষ্টি হয়, আর সেখানে অনুশীলন করা হয়, তাহলে মাঠ নষ্ট হবে।

নকআউটে জার্মানির বিপক্ষে ইংল্যান্ড কখনো জিতেনি। বরং এই দুই দলের ফুটবল ইতিহাসে রয়েছে অনেক ঘটনা। ফুটবল মাঠের নানা ঘটনায় দুই দেশের মধ্যে মাঠের শত্রুতা শুরু। যা দেখে ফুটবল দর্শকের চোখেও ফুটবলের বাড়তি উত্তাপে রূপ নেই জার্মানি ইংল্যান্ড ম্যাচ।

যদি ধরা হয় ১৯৬৬ বিশ্বকাপ। সেখানে আরেক ইতিহাস সৃষ্টি হয়েছিল। আজকে যে ওয়েম্বলিতে খেলা হবে সেখানে পশ্চিম জার্মানিকে ৪-২ গোলে হারিয়ে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়। সেটাই ছিল ইংল্যান্ডের শেষ বিশ্বকাপ জয়। ৯৬ ইউরোতে জার্মানির বিপক্ষে পেনাল্টি মিস করেছিলেন ২০১০ বিশ্বকাপে হারতে হয়েছিল ইংল্যান্ডকে। হারের সেইসব কিছু মনে রাখতে রাজি না ইংল্যান্ড। সেই দলের জার্সি গায়ে পেনাল্টি মিস করেছিলেন আজকের ইংল্যান্ডের কোচ গেরেথ সাউথগেট। আগের প্রসঙ্গ উঠলে এই কোচ সবকিছু এড়িয়ে যান। বলছিলেন পুরো সব কথা টেনে এনে লাভ কী। ইংলিশ সংবাদ মাধ্যমকে সাউথগেট জানিয়েছে এখন যারা ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে খেলছেন তারা সেই সব পুরোনো কিছু নিয়ে মাথা ঘামান না। বলছেন, ‘এখানকার খেলোয়াড়রা জন্মেছে ২০০০ সালের পর। তাদের কাছে সেই সব কথা আমলে যায় না। সাউগেট যে কথাই বলুন না কেন, ইংলিশরা কখনো অতীত ইতিহাস ভুলে যান না। ভেতরে ভেতরে তারা প্রতিশোধ নিতে মুখিয়ে থাকেন। তবে ইংলিশ কোচ মনে করিয়ে দিয়েছেন তারা অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে ভুল করেন না। জার্মান কোচ জোয়াকিম লো তার শিষ্যদের রাঙিয়ে দিতে, উজ্জীবিত করতে সাফেল্যর কথাগুলো তুলে ধরেছেন। এই কোচ এবার জাতীয় দলের দায়িত্ব ছড়ে দেবেন। তার আগে স্মরণীয় লড়াইটা উপহার চাইছেন নুয়্যয়ারদের কাছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
এক ক্লিকে বিভাগের খবর